Breaking News

আজানের ধ্বনিতে মুগ্ধ হয়ে হিন্দুধর্ম ত্যাগ করে মুসলমান হলেন যুবক!

ইসলাম শিক্ষা দেয় যে আল্লাহ দয়ালু, করুনাময়, এক ও অদ্বিতীয়। ইসলাম মানব জাতিকে সঠিক পথ দেখায়। ইসলামী বিশ্বা’স অনুসারে, আদম ‘হতে শুরু করে আল্লাহ্ প্রেরিত সকল নবী ইসলামের বাণীই প্রচার করে গেছেন। যুগে যুগে বহু মানুষ ভিন্ন ধর্ম থেকে ইসলাম গ্রহন করেছেন।

 

নতুন খবর হচ্ছে, স্বপন সরকার নামের এক যুবক হিন্দু ধর্ম পরি’ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পর তার নাম রাখা হয়েছে মো. আবদুল্লাহ্ আল সিয়াম (২৪)।

 

শুক্রবার (১৮ জুন) জুমা’র নামাজের পূর্বে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদে তাকে কালেমা পাঠ করান মসজিদের খতিব হযরত মাওলানা মুফতি ড. সালাহ্ উদ্দীন আশরাফী।

 

মো. আবদুল্লাহ্ বলেন, ছোট বেলা থেকেই ইসলামের ধর্মীয় রীতি-নীতি ভালো লাগতো। নামাজ, যাকাত, হজ্ব ই’ত্যাদি সবই ভালো লাগে, তখন থেকেই ইসলাম ধর্মের প্রতি এক ব্যতিক্রম শ্র’দ্ধা আসে নিজের মধ্যে। আমা’র সব বন্ধুরাই মুসলিম, চলাফেরাও ওদের সাথেই। আজানের ধ্বনি আমাকে মুগ্ধ করে। বাংলাদেশসহ পৃথিবীতে অনেক সৌন্দর্য্যময় মসজিদ রয়েছে যেগু’লোর ভিতরে প্রবেশ করলে মনে প্রশান্তি আসে।

 

আমি দূরে থাকলেও আমা’র মা-বাবাকে ইসলামের পথে আনার চে’ষ্টা করবো এবং দূর থেকে হলেও তাদের খেদমত করবো ইনশাআল্লাহ্। তিনি যেন সঠিকভাবে শান্তির ধর্ম ইসলাম পালন করতে পারেন, আল্লাহর হুকুম ও নবী রাসুলের (সা:) দেখানো পথে চলতে পারেন এজন্য সকলের নিকট দোয়া কামনা করেন।

 

উল্লেখ্য, এরআগে তিনি টাঙ্গাইল কোর্ট থেকে গত ০৮ই জুন এফিডেভিট মাধ্যমে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের ঘোষণা দেন। তার বাড়ি মির্জাপুর পৌরসভার বাওয়ারকুমা’রজানি গ্রামে। তার পরিবার ছেড়ে স্বজ্ঞানে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

 

 

 

৩০ পারা মুখস্থ করতে সক্ষম হয়েছেন। অদম্য স্পৃহায় চার বছরে কোরআনের হাফেজ হয়েছেন তিনি। মুখ দিয়ে পবিত্র কোরআনের পাতা উল্টিয়ে নিয়মিত কোরআন তেলাওয়াত করেন তারিক। সৌদি আরবের আসির প্রদেশের সিরাহ ওবাইদা শহরের ৩৫ বছর বয়সী এই তারিক আল-ওদায়ীর বাসায় গিয়ে তার শিক্ষক পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও হেফজ প্রশিক্ষণ দিতেন। এছাড়াও তারিক টেলিফোন এবং কম্পিউটার চালানো শিখেছেন ও সামাজিক নেটওয়ার্কেও তিনি সক্রিয় রয়েছেন।

 

বিভিন্ন আলেম’দের সঙ্গে ইন্টারনেটের মাধ্যমে যোগাযোগ রাখেন বলে জানা গেছে। সৌদি আরবের আসির প্রদেশের কোরআন হেফজ সেন্টারের সহযোগিতায় তিনি চার বছরে সম্পূর্ণ কোরআন হেফজ করতে সক্ষম হয়েছেন। আল্লাহ পাক রাব্বুল আলামিনের গণনায় মাসের সংখ্যা ১২টি। তার মধ্যে সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ মর্যাদার মাস হলো মাহে রমজান। এটা ফ;যি;লা;তের মাস, গুনাহ মাফের মাস, স;ব;চে;য়ে বেশি

About admin

Check Also

আজানের ধ্বনিতে মুগ্ধ হয়ে হিন্দুধর্ম ত্যাগ করে মুসলমান হলেন যুবক

ইসলাম শিক্ষা দেয় যে আল্লাহ দয়ালু, করুনাময়, এক ও অদ্বিতীয়। ইসলাম মানব জাতিকে সঠিক পথ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.