Breaking News

‘তারা যে বদনাম উঠিয়েছে তাতে আমি এই পৃথিবীতে থাকতে পারছি না’

বরগুনায় মায়ের কাছে চিরকুট লিখে গ;লা;য় ফাঁ;স দি;য়ে আ;ত্ম;হ;;ত্যা ক;রেছে সামিরা (১৪) না;মের অ;ষ্টম শ্রে;ণির এ;ক স্কু;লছা’ত্রী।সোমবার (৫ জুলাই) সকালে শহরের খামা’র বাড়ি এলাকার নিজ বাসার টয়লেট থেকে তার ম;র;দে;হ উ;দ্ধা;র করা; হয়।

 

স্কুলছা’ত্রীর স্ব;জ;ন;রা জা;নান, সা;মিরা তা;র মায়ের স;ঙ্গে দ্বিতীয় স্বামী রাশে;দের সঙ্গে বরগুনা পৌর;সভা’র খামা’রবাড়ি এলা;কার আবুল বা;শারের বা;সায় ভা;ড়ায় থাকতো। বা;ড়ি;ওয়ালার ছে’লে জা;মাল হোসেনের স্ত্রী’-;সন্তা;ন থা;কা সত্ত্বেও স্কু;লছা;ত্রী সা;মি;কে উত্য;ক্ত কর;তেন। এ;কাধি;বার সামি;রাকে শা;রী;রিক ভা;বেও লা;ঞ্ছিত করে;ছে জা;মাল।

 

গত কয়েকদিন ধরে সামিরা ও জামালকে জড়িয়ে আ’পত্তিকর ম;ন্তব্য ও অ;নৈতিক স;ম্পর্কের ক;থা ব;লাবলি কর;ছিল প্রতিবেশীরা। রোববার (৪ জুলাই) রাতে সামিরার মা বাড়িওয়ালা আবুল বাশারকে মোবাইল ফোনে তার ছে’লের এসব বিষয় স’ম্পর্কে জানায়। আবুল বাশার গ্রামের বাড়ি থেকে এসে এর বিচার করবেন বলে আশ্বস্ত করেছিলেন। কিন্তু অ’পমান স;হ্য করতে না পেরে সোমবার সকালে গলায় ফাঁ’স দিয়ে আ;;ত্ম;হ;ত্যা ক;রে সা;মি;রা।

 

স্কুলছা’ত্রী মা সুমী বেগম বলেন, আমি জানি আমা’র মে’য়ে কেমন ছিল। ওই জামাল আমা’র মে’য়েকে সবসময় উ;ত্যক্ত করতো। আমি জামালের বাবাকে সব জা;নিয়েছি। গত কয়েকদিন ধরে সামিরা ও জামালকে জড়িয়ে প্রতিবেশীরা অনৈ;তিক সম্প;র্কের কথা বলাবলি করে আসছিল। সবাই সামি;রাকে গা;লম;ন্দ ও হাসা;হা;সি করছি;ল। বিষয়টি নিয়ে ল;জ্জায়, অ’প;মানে গ;লায় ফাঁ;;স দি;য়ে আ;ত্ম;হ;ত্যা; করে আ;মা’র মে’য়ে সামিরা।

 

আ;;হ;ত্যা;র আগে সামিরা তার মায়ের কাছে একটি চিরকুট লিখে রেখে যায়, চিরকুটে লেখা ;- ‘মা তারা আমা’র নামে যে বদনাম উ;ঠিয়েছে তাতে আমি এই পৃথিবীতে থাকতে পারছিনা। আমি নাকি খুব খা’রাপ মে’য়ে, আমি নাকি খুব খা’রাপ। মা তুমি ভালো থেকো আমাকে কেউ বিশ্বা’স করেনা, কেউনা তুমি ছাড়া। ইতি তোমা’র সামিরা’

 

 

 

 

 

কভিড-১৯ থেকে সেরে উঠে যাঁরা টিকার একটি বা দুটি ডোজ নিয়েছেন, ডেল্টা ধরনকে প্রতিরোধ করার ক্ষমতা তাঁদের সবচেয়ে বেশি। ডেল্টা ভেরিয়েন্ট সামাল দেওয়া নিয়ে যখন সবাই হিমশিম খাচ্ছে, তখন এই স্বস্তির খবর দিল ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর)।

 

গবেষণার ভিত্তিতেই এই তথ্য দিয়েছে আইসিএমআর। গবেষণায় দেখা গেছে, সংক্রমিত না হয়ে যাঁরা একটি বা দুটি টিকা নিয়েছেন, তাঁদের চেয়ে কভিড থেকে সেরে উঠে টিকা নেওয়া মানুষের শরীরে ডেল্টা রূপকে প্র,তিরোধ করার ক্ষমতা বেশি থাকে। জীববিজ্ঞান সংক্রান্ত গবেষণা প্রকাশিত হয় যে ওয়েবসাইটে, সেখানে আইসিএমআরের এই নতুন গবেষণার কথা উঠে এসেছে।

 

কভিড-১৯ থেকে সেরে উঠে টিকা নেওয়া এবং সংক্রমিত না হয়ে টিকা নেওয়া রোগীদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা পর্যবেক্ষণ করতে এই গবেষণা চালিয়েছে আইসিএমআর। গবেষণায় নেতৃত্ব দেন পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজি, পুনের আর্মড ফোর্সেস মেডিক্যাল কলেজ ও কম্যান্ড হাসপাতালের নিউরোসার্জারি বিভাগের গবেষকরা। তবে এই গবেষণার ফলাফল এখনো যাচাই করে দেখা হয়নি। ফলে অন্য বিশেষজ্ঞদের সিলমোহর এখনো এই গবেষণায় পড়েনি।

About admin

Check Also

চালক প্রাণ দিয়েও ডাকাতদের কবল থেকে রক্ষা করতে পারলেন না বাস

গাইবান্ধা জেলার সীমানা চম্পাগঞ্জ এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে হানিফ পরিবহনের একটি নৈশকোচে ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। এ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.