Breaking News

দুই দালানের ৮ ইঞ্চি ফাঁকায় ন’গ্ন না’রী, নাকাল উ’দ্ধারদল

কর্মব্যস্ত ক্যালিফোর্নিয়ার একটি অটো বডি শপের শ্রমিকরা মঙ্গলবার বিকেলে এক নারীর চিৎকারের শব্দ শুনতে পান। আওয়াজের উৎস খুঁজতে শ্রমিকরা বেশ কঠিন সময় পার করেন বলে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা জানিয়েছেন। পরে ঠিক দুপুর ২টার দিকে তারা পুলিশকে সাহায্যের জন্য ডাকে। চারপাশে খুঁজে দেখতে পুলিশ কর্মকর্তারা ছা,দে ওঠেন। ছাদ থেকে তারা অটো শপ এবং অন্য একটি বিল্ডিংয়ের মধ্যের ৮ ইঞ্চি ফাঁকার ভেতর একজন ন,গ্ন না,রীকে দে,খতে পান।

 

টিম গাড়ি মেরামত ও স্মোগ শপের মালিক ম্যাক্স বেনেট জানান, ওই ফাঁকাটি বিড়াল বা একটি কুকুরের পড়ে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট বড়, তবে কোনোমতেই মানুষ পড়ে যাওয়া সম্ভব নয়।

 

অরেঞ্জ কাউন্টি ফায়ার অথরিটি টুইটারে জানায়, ফায়ার ফাইটাররা অবশেষে ওই না,রীকে উ,দ্ধারের জন্য দেয়াল কা,টতে বা,ধ্য হয়। দেয়ালে গ,র্ত কেটে তাকে বের করেন তারা। ৮ ইঞ্চি পুরু কংক্রিটের দেয়াল কেটে উ,দ্ধার অভিযানে দুই ঘণ্টারও বেশি সময় লেগেছে বলে কেএবিসি জানিয়েছে।

 

স্টেশন থেকে জানা গেছে, গু,রুতর আ,হত ওই মহিলাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়নি। তিনি ফায়ার ক্রুদের সঙ্গে কথা বলার সময় কীভাবে ভবন দুটির মধ্যে আ,টকা পড়েছিলেন তা প্রকাশ করেননি। অরেঞ্জ কাউন্টি ফা,য়ার অথরিটির ক্যাপ্টেন থান্ট এনগুইন বলেন, ‘এখনও আমাদের সকলের কাছে এটি একটি র,হস্য।’

সূত্র : ডেইলি মিরর

 

 

 

স’রকারি চাকুরে মতিন সাহেবের ৫ কন্যা। জ্যোতি, রতি, নীতি, মিতি আর ইতি। ছোট মেয়ের নাম ইতি রাখার কারণ হচ্ছে- তিনি চাচ্ছেন বি’ষয়টাতে ইতি টানার। চেষ্টা করে যাচ্ছেন একটা ছে’লে স’ন্তানের জন্য। বয়স হচ্ছে।

 

শেষ বয়সে দেখার মতো কেউ না থাকলে বি’ষয়টা খুবি মন্দ হবে। মে’য়েরাতো চলে যাবে পরের বাড়ি। বৃ’দ্ধ বয়সে তাকে আর তার স্ত্রী’কে দেখবে কে? আম’রা জানি, কেবল মতিন সাহেবই নন। মতিন সা’হেবের মতো আরো অনেকে এই রকম চিন্তা মা’থায় লালন করেন। চিন্তাটা শুধু লালন করার মধ্যেই যদি সীমাবঃদ্ধ রাখা হতো তবু ব্যাপারটা সহনীয় মাত্রায় হয়তো থাকতো। কিন্তু ব্যাপারটা আরো মন্দের দিকে যায় যখন পিতা-মাতা’র এই চিন্তা তাদের কন্যা স’ন্তানটির সাথে আঃচরণেও প্রভাব ফে’লে।

 

আর কন্যা শি’শুটি বেড়ে ওঠে একটা অসাম্য পরিবেশের ভে’তর দিয়ে মা’নসিক পীড়ন সহ্য করে। যারা বিশ্বা’স করেন, শুধু আপনার পুত্রধ’নই আপনাকে বৃ’দ্ধ বয়সে নিরাপত্তা দেবে, দেবে সেবা। তা’দের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে, শ্রদ্ধেয়, আপনার ধারণাটিকে ভু’ল প্রমাণিত করেছে ‘আ’মেরিকান স্যোসিওলোজিক্যাল এসোসিয়েশন’। তারা ‘মিশিগান বি’শ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য ও অবসর গবে’ষণা বিভাগের মাধ্যমে ৫০ উর্ধ্ব ২৬,০০০ লোকের উপর স্টাডি করে যে ত’থ্য পায়, তা হলো- একটা মেয়ে মাসে ১২.৩ ঘন্টা সময় দেয় তার বৃ’দ্ধ বাবা-মা’র পরিচর্চায় আর বিপরীতে একটা ছে’লে দেয় ৫.৬ ঘন্টা।

 

প্রিন্স’টন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক লেখিকা অ্যাঞ্জে’লিনা গ্রিগোরিভা জানান, একটা মেয়ে তার ছে’লে-মেয়ে, চাকরি এবং সংসারের হাজারটা সমস্যা সামলিয়ে কোন বোন, কাজের মেয়ে কিংবা অন্যকারো সাহায্য ছাড়াই বৃ’দ্ধ পিতা-মাতার সেবা যত্ন করে। তিনি ছে’লেদের সেবায’ত্নের বি’ষয়টা উল্লেখ করে আরো বলেন, ‘ছে’লেরা যে সেবা-যত্ন তাদের বাবা-মাকে করে সেটাও অন্য কারো সহায়তা নিয়ে, সেটা ছোট বোন, স্ত্রী’ কিংবা কা’জের লোকেরও হতে পারে।’ হ্যাঁ, এবার আপনি বলবেন হয়তো এটাতো আ’মেরিকার গবে’ষণা!

About admin

Check Also

তালেবান ইস্যুতে যা বললেন মোদি!

দীর্ঘ ২০ বছর পর আফগানিস্তানের শাসন ক্ষমতা নিয়েছে তালেবান। এরই মধ্যে আফগানিস্তানের দুইটি ভারতীয় দূতাবাসে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.