Breaking News

ফেসবুকে প্রে’ম, অ’তপর হিন্দু মে’য়ে মু’সলিম হয়ে বি’য়ে করলো মু’সলিম ছে’লেকে!

মে’য়েটি হিন্দু, আর ছে’লেটি মু’স’লিম! ফেসবু’কে দুজনের পরিচয়! রাত’জেগে চ্যাটিং করা, আর সারাদি’ন, একজন আ’রেক জনের গায়ে প’রে ঝ’গড়া করা! মা’ঝে, মধ্যে একটু একটু অ’ভিমানের মধ্যদিয়ে গড়ে ওঠে বন্ধু’ত্ব! বেশির’ভাগ সময় অ’ভি’মান গুলো ভে’ঙ্গে যেত, ছো’ট্ট করে সরি লিখা একটা এসএমএস এর মা’ধ্যমে!

 

অ’ভিমানের পরিমা’ণটা একটু বেশী হলে, অ’ভি’মান ভাঙ্গা’নোর প্রধা’ন হাতিয়ার ছিল পিক’চার পাঠানো। কোন এক স’ন্ধায়! আ’জান হই’ছে না’মাজে যা! সু’প্তিনা: আজ’কে যাব’না! আকাশ: নামাজ না প’রলে তুই আমা’র সাথে একদম কথা বল’বিনা। ইদানীং না’মাজ পরা হয়না, কাধে শয়তান উঠছে। কি তু’ই পাচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করিস না? আগে জা’নলে হয়’তো তোর সাথে কথাই বলা হতনা। আগে পর’তাম ইদানীং হয়না!আকাশ কিছুটা অ’বাক হয়ে গেল, কি করে হিন্দু একটি মে’য়ে নামাজে’র জন্য এ’তটা তাগি’দ দিতে পারে।

 

প্লি’জ এখন থেকে ৫ ওয়াক্ত নামা’জ পরবি, আ’মায় কথা দে!-ওকে কথা দিলাম এখন থেকে ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়ব-এভাবে না আমা’র কছ’ম খেয়ে বল এখন থেকে ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদা’য় করবি-ওকে বান্দন্নি ৫ ওয়াক্ত না’মাজ পরব। কিন্তু একটা ব্যাপার মা’থায় আস’ছেনা!-কি ব্যাপার?-তুই হিন্দু হয়ে নামাজের জন্য এতটা তাগি’দ দিচ্ছিস ক্যান?-ভাল কা’জের জন্য সবা’ই তা’গিদ দি’তে পারে! তাছা’ড়া আমি হিন্দু পরি’বারে জ’ন্মেছি এটাকি আ’মা’র অ’প’রাধ’ বল?

 

-একদম না(মেসেজের রিপ্লাই কি দিবে বু’ঝতে পারছিল’না ছে’লেটা)মে’য়েটি প্রতিদিন ছে’লেটার খোঁ’জ খবর রা’খে। সাথে নামাজ পরেছে কিনা সেই ব্যা’পারেও খোঁজ’খবর রাখ’তো। কখনো নামাজ মিস হলে অজানা এক অ’ভিমানে হিন্দু মে’য়েটি ছে’লেটির সাথে কথা ব’লতোনা। প্রথ’ম রম’জানে:-ওই বান্দ’র (হিন্দু মে’য়ে সুপ্তি)– কি ঢংগি ঘুম থেকে উঠ’ছিস কখন? (মু’সলিম ছে’লে আকাশ)-অনেক আগে তুই?-মাত্র উ’ঠলাম-স’কালে খাইছি কিছু?-এক গ্লাস জল পর্য’ন্ত না, তোর সাথে খাব। গত’কাল তো’কে বলছি না, আজ’কে আমি রোজা থাকব, আ’চ্ছা তুর কি ভাব আ’র নেও’য়া ছাড়’বিনা?

 

ওই বান্দর আ’মিও রো’জা রাখছি-একদম পাগ’লামো কর’বিনা কিছু খেয়ে নে-তুই ক’ষ্ট করবি আর আমি খাব এক’দম না-দেখ ভাল হচ্ছে না কিন্তু-না খাব’না,তোকে রেখে কোনদিন খাইছি?-আরে পাগলি আমা’র খে’তে লেট হবে-জানি সন্ধা’য় খাবি-হু’ম-আমিও স’ন্ধায় খাব-থাকতে পা’রবি সারা’দিন না খেয়ে? হাজার বার পারব-তোর বাসায় জানে এইসব-তুই পাগল নাকি? জানবে কি করে। তাছাড়া বাসা’য় জা’নতে পারলে অনে’ক সমস্যা’ হবে।এই’ভাবে তা’দের ম’ধ্যে চলতে থাকে অ’নেক দিন।একদিন সুপ্তি বলে আ’মা’কে তুই বিয়া করবি ” আকাশ চ’মকে যায় বলে তুই কি পাগল হই’চিস?

 

তুই কি পারবি সবকিচু ফেলে আমাকে নিয়ে থাকতে? সুপ্তি হেসে বলল আরে পাগল তুই আমাকে এত দিন এ চিনছিস, আমি তোকে ভালো’বাসি যতটুকু তার থেকে তোর ধ’র্ম’কে বেশি ভাল ভা’লোবাসি।অবশেষে আকাশ বিয়ে করতে রাজি হয়ে গেল। সুপ্তি এখন “শাদিয়া আক্তার” (ঘটনাটা সবাইকে দেখার জন্য অব’শ্যই শেয়ার করবেন) ”মহান দয়ালু আল্লাহ তায়া’লা এই দম্পতিকে সুখে শান্তিতে রাখু’ন। আমীন..

 

 

 

কক্সবাজারের রামুতে দেড়শ টাকা চু’রির অ’ভিযোগে দুই শি’শুকে মুরগির খাঁচায় ব’ন্দি করে ইলেকট্রিক শক ও জ্বলন্ত সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়ে নি’র্যাতন করেছেন এক আওয়ামী লীগ নেতা। গত বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) রামু উপজে’লার পাহাড়ি জনপদ ঈদগড় ইউনিয়নের ঈদগড় বাজারের একটি মুরগির দোকানে এ ঘ’টনা ঘটে। সোমবার (৫ জুলাই) ওই ঘ’টনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়।

 

অ’ভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতার নাম রিফাত করিম (৩২)। তিনি ঈদগড় ৪নং ওয়ার্ডের মো. শরিফ পাড়ার নেজাম উদ্দিনের ছেলে। নি’র্যাতনের শি’কার দুই শি’শু ঈদগড় ৪নং ওয়ার্ডের মো. শরিফ পাড়া এলাকার প্রতিব’ন্ধী মো. নুরুল আলম ছেলে সোহেল (১০) ও রশিদ আহম’দের ছেলে ইব্রাহিম (১০)।

 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত কোনো আইনি সহায়তা পাননি ভু’ক্তভোগীরা। তবে পু’লিশের দাবি, মা’মলা করতে রাজি হচ্ছে না ভু’ক্তভোগীর পরিবার। নি’র্যাতনের একটি ভি,ডিও জাগো নিউজের এ প্রতিবেদকের হাতে এসেছে। ১ মিনিট ৬ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, দুই শি’শুকে মুরগির খাঁচার ভে’তরে ঢুকিয়ে দিয়ে বাইরে থেকে সিটকিনি লাগেয়ে দেয়া হচ্ছে।’

 

নি’র্যাতনের শি’কার শি’শু ইব্রাহিম জানায়, তাদেরকে খাঁচায় ব’ন্দি রেখে শ’রীরের বিভিন্ন অংশে ইলেকট্রিক শক ও জ্বলন্ত সিগারেটের ছ্যাঁকা দেন আওয়ামী লীগ নেতা রিফাত। এ বি’ষয়ে ঈদগড় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমেদ ভুট্টো জানান, ঈদগড় বাজারে আওয়ামী লীগ নেতা রিফাত করিমের একটা মুরগির দোকান আছে। সেখানে পেটের দায়ে দুবেলা ভাতের বিনিমিয়ে কাজ করে শি’শু সোহেল।

About admin

Check Also

আজানের ধ্বনিতে মুগ্ধ হয়ে হিন্দুধর্ম ত্যাগ করে মুসলমান হলেন যুবক

ইসলাম শিক্ষা দেয় যে আল্লাহ দয়ালু, করুনাময়, এক ও অদ্বিতীয়। ইসলাম মানব জাতিকে সঠিক পথ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.