Breaking News

শুধুমাত্র একটা ফোন করলেই বিনামূল্যে অক্সিজেন পৌঁছে দিবে সাকিবের ফাউন্ডেশন

করোনা মহামারিতে প্রতিদিনই মৃত্যু হচ্ছে অসংখ্য মানুষের, মৃত্যুর সাথে লড়াই করছে এমন মানুষের সংখ্যাটাও মোটেও কম নয়। করোনা আক্রান্ত রোগীর জীবন মরণের সন্ধিক্ষণে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে অক্সিজেন, ভারতে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ার পরে অক্সিজেনের সংকটে হাহাকার লক্ষ্য করা গেছে।

 

বাংলাদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট বা ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট, ক্রমেই ভয়ংকর রূপ ধারণ করছে এটি। সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বিষয় হলো এই ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়েছে শহর, গ্রাম সর্বত্রই। অক্সিজেন সংকট এখনো সেভাবে দেখা দেয়নি, সেটা অবশ্যই স্বস্তির কথা; কিন্তু পরিস্থিতি যে কোন মুহুর্তেই খারাপ হতে পারে।

 

এমন প্রেক্ষাপটে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে অক্সিজেন, জরুরি প্রয়োজনে সেই অক্সিজেন বিনামূল্যে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে দ্যা সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন। ফোন করলেই জরুরী ভিত্তিতে পাওয়া যায় যাবে অক্সিজেন সেবা, দাফন সেবা ও অ্যাম্বুলেন্স সেবা, এক ফেসবুক পোস্টে বিষয়টি জানিয়েছে ফাউন্ডেশনটি।

 

উল্লিখিত নম্বরে ফোন করলেই পাওয়া যাবে জরুরী অক্সিজেন সাপোর্ট দ্যা সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের পেইজে পোস্টে বলা হয়েছে, “জরুরী ভিত্তিতে বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা, দাফন সেবা ও এ্যাম্বুলেন্স সেবা পেতে কল করুন। 018 333 44 074, কেউ অক্সিজেন, এ্যাম্বুলেন্স ও দাফন সেবা থেকে বাদ যাবে না।”

 

সারাদেশেই পাওয়া যাবে দ্যা সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের এই সেবা গুলো, তাদের সাথে যুক্ত হয়ে কাজ করবে মাস্তুল ফাউন্ডেশন। শেয়ারের মাধ্যমে সবার মাঝে বিষয়টি ছড়িয়ে দেওয়ারও আহ্বান জানানো হয়েছে পোস্টের মাধ্যমে।

 

নম্বরটি সংগ্রহে রাখতে অনুরোধ জানিয়েছে বলা হয়েছে, “আপনার একটি শেয়ারে একজন মানুষের জীবন বাঁচতে পারে, নম্বরটি সংগ্রহে রাখুন এবং শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন সবার মাঝে। সাকিব আল ফাউন্ডেশন এবং মাস্তুল ফাউন্ডেশন যৌথ ভাবে লাশ দাফন, অক্সিজেন সার্ভিস ও এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস দিয়ে আসছে।”

 

গত বছর বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ শুরু হলে দেশের ক্রান্তিলগ্নে মানুষের পাশে দাঁড়াতে দ্যা সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন চালু করে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। যে ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সারাদেশে করোনা ইক্যুইপমেন্ট, খাদ্যসহ বিভিন্ন সহায়তা নিয়ে মানুষের কাছে ছুটে গেছে।

 

 

কিন্তু বাড়ি পৌঁছার আগেই মুখোমুখি হয়ে যান ভ্রাম্যমাণ আদালতের। পরে সাতদিন ঘরে থাকার শর্তে জরিমানা ছাড়াই ছাড়া পান তারা। শুক্রবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার হাটাহাজারী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী হাটহাজারীর ইউএনও রুহুল আমীন বলেন, সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে শুক্রবার দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত হাটহাজারী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। সন্ধ্যা ৬টার দিকে আমাদের দেখে একটি অটোরিকশা দ্রুতগতিতে চলে যেতে চাইলে আটক করা হয়। এ সময় অটোরিকশায় এক নব দম্পতি ও তাদের দুই আত্মীয়কে দেখতে পাই। অর্থ্যাৎ, চালকসহ মোট পাঁচজন ছিলেন গাড়িটিতে।

About admin

Check Also

এক দিনে ১ কোটি লোককে টিকা দিল ভারত

ভারত শুক্রবার একদিনে প্রথমবারের মতো ১০ মিলিয়নের বেশি ভ্যাকসিন দিয়েছে। আজ শনিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, …

Leave a Reply

Your email address will not be published.