Breaking News

স্বামীকে প’শু করে তুলল তা’লাকনা’মা…..!!

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে স্বামীর সঙ্গে সংসার করবে না জানিয়ে ডিভোর্স লেটার পাঠানোর জে,রে ক্ষি,প্ত হয়ে স্ত্রীকে ছু,রিকাঘা,ত করে পে,টের না,ড়িভুঁ,ড়ি বের করে ফেলেছেন পা,ষণ্ড স্বামী। এ ঘটনায় স্ত্রী গুরুতর আ,হত হলে স্বামী পা,লিয়ে যান। রবিবার সকালে উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের উকিলপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে হ,ত্যাচে,ষ্টার অ,ভিযোগে মা,মলা দায়ের হয়েছে।

 

মামলা সূত্রে জানা যায়, সীতাকুণ্ড পৌরসভার মৌলভীপাড়ার আবুল বশরের মেয়ে পিয়ারু বেগমের (৪০) সঙ্গে ২০১৩ সালে বিয়ে হয় সন্দ্বীপ উপজেলার রহমতপুর এলাকার মোহাম্মদ মোস্তফার ছেলে ওমর শরীফের। তাদের সংসারে ছয় ও চার বছর বয়সী দুই কন্যা সন্তান আছে। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে নানান কারণে তাদের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় আলাদা বসবাস করছিলেন। সম্প্রতি স্ত্রী পিয়ারু বেগম স্বামী ওমর শরীফকে ডিভোর্স লেটার পাঠান। এ খবর জানার পরও ওমর শরীফ তার স্ত্রীকে বুঝিয়ে পুনরায় সংসার করতে চান। কিন্তু স্ত্রী সংসার না করার ব্যাপারে অনড় থাকেন। এমন অবস্থায় রবিবার সকাল ৮টার দিকে ওমর ফারুক আবারও মুরাদপুর উকিল পাড়ার ভাড়া বাসায় গিয়ে স্ত্রীকে সংসার করার জন্য চাপাচাপি করতে থাকেন। কিন্তু স্ত্রী পিয়ারু তার সঙ্গে কোনো সম্পর্ক রাখবে না বলে সাফ জানিয়ে দিলে ক্ষিপ্ত হয়ে ওমর শরীফ স্ত্রীর পে,টে ধা,রালো ছু,রি দিয়ে আ,ঘাত ক,রলে তার পে,টের না,ড়িভুঁ,ড়ি বের হয়ে আসে। এ ঘটনার পর তিনি পা,লিয়ে যান। পরে প্রতিবেশীরা তাকে উ,দ্ধার করে চমেক হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান। তার অবস্থা আ,শঙ্কাজ,নক।

 

সীতাকুণ্ড মডেল থানার এসআই টিবলু কুমার মজুমদার বলেন, এ ঘটনায় পিয়ারু বেগমের ভাই মফিজুর রহমান বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। অ,ভিযু,ক্ত ওমর শরীফকে গ্রে,প্তারের চেষ্টা চলছে।

 

 

 

দেশের ঊর্ধ্বমুখী করোনা সং,ক্রমণ রোধে এবং মানুষকে সচেতন করতে সেনাবাহিনীর সাহায্য নিতে পারে বাংলাদেশ সরকার। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানিয়েছেন, এ অবস্থায় আগামী বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) থেকে মাঠে নামতে পারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

 

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় আগামী সোমবার (২৮ জুন) থেকে সীমিত পরিসরে এবং বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) থেকে সাত দিন সারাদেশে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ ঘোষণা করেছে সরকার। এ সময় মাঠে থাকবে পুলিশ ও বিজিবি। সেনাবাহিনীও মাঠে থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

 

লকডাউন চলাকালীন সময়ে জরুরি পরিষেবা ছাড়া সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। জরুরি পণ্যবাহী যান

ব্যতীত সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। অ্যাম্বুলেন্স ও চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজে যানবাহন চলাচল করতে পারবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে কেউ বের হতে পারবে না। তবে গণমাধ্যম লকডাউনের বিধিনিষেধের আওতার বাইরে থাকবে।

 

সেনাবাহিনীর একজন কর্মকর্তা জানান, সরকার চাইলে লকডাউনে মাঠে নামবে সেনাবাহিনী। গত বছরও লকডাউনে মাঠে ছিলেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রজ্ঞাপনের পর বিষয়টি পরিস্কার হবে।

 

সূত্রমতে, আগের চেয়ে এবারের লকডাউন কঠোর হবে। মাঠ পর্যায়ে পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি দায়িত্ব পালন করবে।

জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘরের বাইরে বের হতে পারবেন না। শুধু জরুরি সেবা ছাড়া আর কোনো কিছুই চলবে না।

 

গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক) লকডাউনের আওতামুক্ত থাকবে। আপাতত এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হলেও পরবর্তী পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে সময়সীমা বাড়ানো হতে পারে।

About admin

Check Also

চালক প্রাণ দিয়েও ডাকাতদের কবল থেকে রক্ষা করতে পারলেন না বাস

গাইবান্ধা জেলার সীমানা চম্পাগঞ্জ এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে হানিফ পরিবহনের একটি নৈশকোচে ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। এ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.