Breaking News

৫ আগস্টের পরে লকডাউন বাড়বে কি না, যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে যে কঠোর লকডাউন চলছে, তা শিথিল হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল।  মঙ্গলবার সচিবালয়ে করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতিতে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত এক পর্যালোচনাসভায় এ কথা জানান তিনি।

 

মাঠের চিত্রে লকডাউন অনেকটাই ঢিলেঢালা হয়ে পড়েছে জানানো হলে- আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে এ বিষয়ে বলা হয়েছে।

 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান শিল্পকারখানা খোলা সংক্রান্ত ইস্যুতে নিয়ে বলেন, ৫ আগস্টের আগে শিল্পকারখা খোলা যায় কি-না সে বিষয়ে শিল্পপতিসহ অনেকেই সরকারকে অনুরোধ করেছেন। কিন্তু এই অনুরোধ সম্ভবত রাখতে পারছি না।

 

৫ আগস্টের পর লকডাউন আরও বাড়ানো হবে কিনা- জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আলোচনা হয়নি।

 

বৈঠক শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ৭ আগস্ট থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকাদান শুরু হবে। এর আগে গতকাল স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের প্রতিটি বয়স্ক ব্যক্তিকেই টিকার আওতায় আনা হবে, কাউকে বাদ দেওয়া যাবে না। সেই লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে। ইউনিয়ন পরিষদ, গ্রাম, এমনকি ওয়ার্ড পর্যায়ে পর্যন্ত সাধারণ মানুষকে টিকা দেওয়া হবে বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

 

 

 

aro porun:

 

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার বুল্লা ইউনিয়নের বুল্লা গ্রামে সরকারি বিধি-নিষেধ অমান্য করে জালু মিয়া নামে এক ব্যাক্তি তার ছেলের বিয়ের আয়োজন করছিলেন। ৫০০ অতিথিকে খাওয়ানোর জন্য করা হয় রান্না। বাড়িতে গেইট ও আলোকসজ্জারও কমতি ছিল না।

 

মঙ্গলবার দুপুরে যখন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতির শেষ পর্যায়ে তখন বাড়ির সামনে আসে বেশ কয়েকটি গিড়ী। বাড়ির লোকজন মনে করেন কনে পক্ষের অতিথিরা মনে হয় চলে এসেছেন। কিন্তু না। কোন অতিথি নয়। গাড়ী থেকে নেমে আসেন খাকি ড্রেস পরিহিত সেনাবাহিনী, পুলিশ আর আনসার সদস্যরা। সবার সামনে মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মঈনুল ইসলাম মঈন।

 

তিনি এসে নির্দেশ দেন আয়োজন বন্ধ করার। আইন না মেনে এই আয়োজন করায় বরের বাবা জালু মিয়াকে করেন ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড। আর অতিথি আপ্যায়নের জন্য রান্না করা ৫০০ জনের খাবার গাড়িতে করে নিয়ে যান এতিমখানায় বিতরণের জন্য।

 

মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মঈনুল ইসলাম মঈন জানান, আইন না মেনে এই ওয়ালিমা অনুষ্ঠান আয়োজন করায় তা পণ্ড করা হয়েছে। বরের পিতার কাছ থেকে নগদ ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। খাবারগুলো পৌঁছে দেয়া হয়েছে বিভিন্ন এতিমখানায়। এটি সবার জন্য উদাহরণ সৃষ্টি করবে।

About admin

Check Also

র‍্যাবের অভিযানে প্রায় ৫০০ দালালের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ

সারা দেশে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কার্যালয়, পাসপোর্ট অফিস ও হাসপাতালে দালালদের ধরতে একযোগে অভিযান …

Leave a Reply

Your email address will not be published.